লোকসভা নির্বাচন২০১৯ কি বলছে আন্তর্জাতিক সমীক্ষার ফল

205

আর মাত্র একদিন বাদেই শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্বের সর্বাপেক্ষা বড় গণতান্ত্রিক উৎসব, ভারতীয় লোকসভার নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার প্রচারণায় মুখর পুরো ভারত। বিশেষ করে ১১ এপ্রিল যে ২০টি আসনে প্রথম দফার ভোট হতে যাচ্ছে সেখানে দলীয় প্রার্থীসহ নেতাকর্মীদের দিন কাটছে চরম ব্যস্ততায়। 

বিশ্বে অন্যতম শক্তিশালী রাষ্ট্র হিসেবে ভারতের লোকসভা নির্বাচন আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও পাচ্ছে বিশেষ গুরুত্ব। আর তাই দেশটির নির্বাচনের সম্ভাব্য পরিস্থিতি ও ফলাফল ঘিরে নিজেদের চালানো সমীক্ষা রিপোর্ট প্রকাশ করেছে ৪টি আন্তর্জাতিক সংস্থা। গতকাল (৮ এপ্রিল) ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এমন তথ্যই পাওয়া গেছে। দেশের বিভিন্ন সমীক্ষা যখন এবারও নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনায় এগিয়ে রাখছে বিজেপি তথা এনডিএকে, তখন একেবারে উল্টোপথে হেঁটে কংগ্রেস তথা ইউপিএকে এগিয়ে রেখেছে আন্তর্জাতিক চার সংস্থার সমীক্ষা রিপোর্ট। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটের প্রাক্কালে আন্তর্জাতিক সমীক্ষক সংস্থা এবার বিজেপি তথা এনডিএ-র পক্ষে বয়ে আনছে দুঃসংবাদ। 

একনজরে দেখে নেওয়া যাক তাদের সমীক্ষা কি বলছে- কংগ্রেস, বিজেপি, তাদের সহযোগী দল বা অন্যান্যরা। এদের নিয়েই হতে যাচ্ছে নির্বাচন। 

দক্ষিণ ভারতে মোট আসন সংখ্যা ১৩৪। তার মধ্যে এবার কংগ্রেস জিততে পারে ৩৫ আসনে। কংগ্রেসের সহযোগী দলগুলি পেতে পারে ৪২টি আসন। অর্থাৎ ইউপিএ পাবে সর্বমোট ৭৭টি আসন। অন্যদিকে এ অঞ্চল থেকে বিজেপি পেতে পারে ১০টি আসন, তাদের সহযোগী আরও ৫টি আসন। তাতে এনডিএর প্রাপ্তি হবে মোট ১৫টি আসন। আর অন্যান্যরা পেতে পারে ৪১টি। 

► পশ্চিম ভারত 
পশ্চিম ভারতে মোট আসন সংখ্যা ১০১। তার মধ্যে এবার কংগ্রেস জিততে পারে ৩২ আসনে। কংগ্রেসের সহযোগী দলগুলি পেতে পারে ১৫টি আসন। অতএব ইউপিএ পাবে ৪৭টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি পেতে পারে ৪২টি আসন, তাদের সহযোগীরা পেতে পারে আরও ১২টি আসন। এনডিএর প্রাপ্তি হবে ৫৪টি আসন। আর অন্যান্যরা পেতে পারে শূন্য। 

► উত্তর ভারত 
উত্তর ভারতে মোট আসন সংখ্যা ১২৬। তার মধ্যে এবার কংগ্রেস জিততে পারে ২৭ আসনে। কংগ্রেসের সহযোগী দলগুলি পেতে পারে ৩টি আসন। অতএব ইউপিএ পাবে ৩০টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি পেতে পারে ৪৭টি আসন, তাদের সহযোগীরা পেতে পারে আরও ৩টি আসন। এনডিএর প্রাপ্তি হবে ৫০টি আসন। আর অন্যান্যরা পেতে পারে ৪৬টি। 

► মধ্য ভারত
মধ্য ভারতে মোট আসন সংখ্যা ৪০। তার মধ্যে এবার কংগ্রেস জিততে পারে ২৩ আসনে। কংগ্রেসের সহযোগী দলগুলি পেতে পারে শূন্য। অতএব ইউপিএ পাবে কংগ্রেসের প্রাপ্ত ২৩টি আসনই। অন্যদিকে বিজেপি পেতে পারে ১৭টি আসন, তাদের সহযোগীরা পেতে পারে শূন্য। এনডিএ পাবে বিজেপির প্রাপ্ত ১৭টি আসনই। এই অঞ্চলে অন্যান্যদের প্রাপ্তিও শূন্য হবে। 

► পূর্ব ভারত 
পূর্ব ভারতে মোট আসন সংখ্যা ১১৭। তার মধ্যে এবার কংগ্রেস জিততে পারে ১৪টি আসনে। কংগ্রেসের সহযোগী দলগুলি পেতে পারে ২০টি আসন। অতএব ইউপিএ-র প্রাপ্তি হবে মোট ৩৪টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি পেতে পারে ১৭টি আসন, তাদের সহযোগীরা পেতে পারে আরও ৯টি আসন। অতএব এনডিএর প্রাপ্তি হবে ২৬টি আসন। আর অন্যান্যরা পেতে পারে ৫৭টি আসন। 

► উত্তর-পূর্ব
ভারত উত্তর-পূর্ব ভারতে মোট আসন সংখ্যা ২৫। তার মধ্যে এবার কংগ্রেস জিততে পারে ১০টি আসনে। কংগ্রেসের সহযোগী দলগুলির দখলে একটি আসন যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। অতএব ইউপিএ-র প্রাপ্তি কংগ্রেসেরই ১০টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি পেতে পারে ৮টি আসন, তাদের সহযোগীরা পেতে পারে আরও ২টি আসন। অতএব এনডিএর প্রাপ্তিও হবে ১০টি। আর অন্যান্যরা পেতে পারে ৫টি আসন। 

► এনডিএ বনাম ইউপিএ
সমীক্ষা মতে দেখা যাচ্ছে, এনডিএ বা ইউপিএ- কেউই এবার সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না, সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না ফেডারেল ফ্রন্টও। এবার ত্রিশঙ্কু লোকসভা হতে চলেছে ভারতে, এমনটাই ইঙ্গিত মিলেছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলির নির্বাচনী সমীক্ষার ফলে। ম্যাজিক ফিগার থেকে দূরে রয়েছে যাবে ইউপিএ। এনডিও থাকবে বেশ পিছনে।

► মোট কে কত 
আসন এই সমীক্ষা রিপোর্ট অনুযায়ী ইউপিএ পেতে পারে ২২১টি আসন। তার মধ্যে কংগ্রেস ১৪১টি। এনডিএ পাবে মাত্র ১৭২টি আসন। তার মধ্যে বিজেপিও ১৪১। সমীক্ষায় প্রকাশ অন্যান্যরা পেতে পারে ১৫৪টি আসন। ফলে কিং-মেকার হতে পারে আঞ্চলিক দলগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here