গুঁইসাপ খেয়ে প্রাণ গেল বাঘের!

43

গাজীপুর গাজীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে গুঁইসাপ খেয়ে অসুস্থ হওয়ার এক সপ্তাহ পর ঈদের দিন এক বাঘের মৃত্যু হয়েছে। ওই পার্কে এখন বাঘের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২টিতে।

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. তবিবুর রহমান জানান, গত ৫ আগস্ট দুপুরে গাজীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের বাঘ বেষ্টনীতে ঢুকে পড়ে বড় আকৃতির একটি গুঁইসাপ। কিন্তু নিজের খাবার ভেবে জ্যান্ত ওই গুঁইসাপকে খেয়ে ফেলে একটি বাঘ। পরের দিন বিকেলে অন্য বাঘরা খাবার খেতে নির্দিষ্ট ঘরে গেলেও ওই বাঘটি আর সেখানে যায়নি। পরের দিন বাঘ বেষ্টনীর গেইটম্যান নজরুল ইসলাম পার্ক কর্মকর্তাকে বাঘের গুঁইসাপ খাওয়ার কথা জানান। বাঘটি গুঁইসাপ খাওয়ার পর থেকেই অন্য কোনো খাবার খাচ্ছে না এবং ঝিমুতে শুরু করে।

এরপর চিকিৎসার জন্য ৭ আগস্ট বাঘটিকে অচেতন করে চিকিৎসা দেয় হলেও তেমন কোনো উন্নতি হয়নি। ৯ আগস্ট থেকে বাঘটিকে বেষ্টনীর ভিতর প্রকাশ্যে কোথাও দেখা যাচ্ছিল না। পরে ঈদের দিন সোমবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে বাঘটিকে বেস্টনীর ভেতরে রাস্তার উপর মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, গুঁইসাপ খেয়েই বাঘটি অসুস্থ হয়ে পড়ে এবং অন্য স্বাভাবিক খাবার না খেয়ে মারা যায়। এছাড়া বাঘটিকে বিষধর কোনো সাপও ছোবল দিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এ ব্যাপারে এখনো কোনো মেডিকেল বোর্ড বা তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়নি।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা উকিল উদ্দিন জানান, মৃত বাঘটির ময়নাতদন্ত করার পর তার দেহের নমুনা পরীক্ষার জন্য ১৩ আগস্ট ঢাকার কেন্দ্রীয় রোগ গবেষণালয়ে পাঠানো হয়েছে। ওই রিপোর্ট পাওয়ার পর বাঘ মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। শ্রীপুর ঊপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আরো জানান, খাবারে বিষক্রিয়া থেকেই বাঘটির মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here